ITV News
Infinity TV News

জিদান, গার্দিওলার মতো পিরলোকে নিয়ে বাজিতে নামলো জুভেন্টাস

খেলাধুলা ডেস্ক:
বিপুল প্রত্যাশা নিয়ে প্রথম কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করতে জুভেন্টাসে পৌঁছেছেন আন্দ্রে পিরলো। তাকে নিয়ে ইতালীতে চলছে কিংবদন্তী ফুটবলার জিনেদিন জিদান ও পেপ গার্দিওলার মতো কোচিং সাফল্যের প্রত্যাশা। জুভেন্টাসের অনুর্ধ ২৩ দলের কোচ হিসেবে নিয়োগ পাবার মাত্র এক সপ্তাহ পর ইতালি ও জুভেন্টাসের সাবেক মিডফিল্ডার ৪১ বছর বয়সি পিরলো ক্লাবটির শীর্ষ দলের দায়িত্ব পেয়ে গেছেন।

ক্লাবটির সভাপতি আন্দ্রে আজনেলি ৩১ জুলাই বলেছিলেন,‘ আন্দ্রে পিরলো এমন এক পথে যাত্রা শুরু করেছেন যে পথে একদিন তিনি মুল দলকে নেতৃত্ব দিতে সক্ষম হবেন।’ এর এক সপ্তাহ পরেই নবম চ্যাম্পিয়ন শিরোপা এনে দেয়া মারজিও সারির কাছ থেকে শীর্ষ দলের দায়িত্ব লাভ করলেন পিরলো। কারণ জুভেন্টাস চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ষোল থেকে ছিঠকে পড়েছে। সঙ্গে সঙ্গে প্রধান কোচের দায়িত্ব থেকে অব্যহতি লাভ করেন সারি।

পিরলো ক্লাবে পৌঁছানোর পর আজনেলি বলেন,‘ এমন একটি দল গঠন করতে হবে যে দলে থাকবে আন্ত:সম্পর্ক, চমৎকার অভিব্যক্তি এবং গতিশীলতা। ’ ২০১১ সাল থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে জুভেন্টাসের হয়ে চারটি লীগ শিরোপা জয় করেছেন পিরলো। এরপর এমএলএসে তিন বছর কাটানোর পর ২০১৭ সালের নভেম্বরে খেলোয়াড়ি জীবন থেকে অবসর নেন পিরলো।

তিনি বলেন,‘ ক্লাব থেকে দূরে চলে যাবার পরও আমি সম্পর্ক ধরে রেখেছিলাম। তুরিন ছেড়ে যাওয়াটা আমার জন্য ছিল স্বাভাবিক একটি বিষয়। আবার এখানে কাজে ফিরে আসাটাও আমার কাছে গতানুগতিক। আমি পুরো দায়-দায়িত্ব নিয়েই নিজেকে এখানে নিয়োজিত করব। এটি আমাকে ফের জীবন ফিরিয়ে দিয়েছে। খেলোয়াড় হিসেবে যা অর্জন করেছি তারই ক্যারিয়ার পুনরুদ্ধারের সুযোগ এনে দিয়েছে।’ খেলোয়াড়ী জীবনে সমসাময়িক তারকা জিদান এবং গার্দিওলাও রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনায় একই সুযোগ কাজে লাগিয়েছেন।

তবে ২০০৬ সালে পিরলোর দলের কাছে বিশ^কাপের শিরোপা হারানো জিদান মুল দলের দায়িত্ব গ্রহনের আগে দুই বছর রিয়াল মাদ্রিদের বি দলের কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। আর গার্দিওলা কাজ করেছেন বার্সেলোনার দ্বিতীয় বিভাগের ক্লাব নিয়ে। পরে তিনি মুল দলের দায়িত্ব নিয়ে এনে দেন চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শিরোপা। পিরলো বলেন,‘ গার্দিওলা এবং জিদান? সবাই চান তাদের মত পথ পাড়ি দিতে। তবে সেটি অর্জনের জন্য আপনাকে অভিজ্ঞতা লাভ করতে হবে।’ নাপোলি কোচ জেনারো গাত্তুসো মনে করেন, তার সাবেক ইতালি ও এসি মিলান সতীর্থের জন্য এই যাত্রাটি হবে একেবারেই খাড়া পাহাড় চুড়ায় আরোহনের মত। বার্সেলোনার কাছে হেরে ইউরোপীয় আসর থেকে বাদ পড়া দলটির এই কোচ বলেন,‘ কৃপার ভিত্তিতে জুভেন্টাসের দায়িত্ব লাভ করলেও আমি বলব এটি হবে বেশ কঠিন কাজ। তিনি ফুটবলার হিসেবে যে ক্যারিয়ারটি গড়েছেন তা এই কাজের জন্য যথেষ্ঠ নয়। আমাদেরকে আরো পড়াশুনা ও কাজ করতে হবে। আমি তার শুভ কামনা করছি।’

Leave A Reply

Your email address will not be published.